Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

আয় না হলে ইউটিউবারদের বিপদ

ইউটিউবের নতুন নীতিমালা কনটেন্ট নির্মাতাদের চিন্তায় ফেলেছে। ইউটিউবের নতুন নীতিমালায় বলা হয়েছে, কনটেন্ট যদি অর্থ আয়ের উপযোগী না হয়, তবে পুরো চ্যানেল মুছে দিতে পারে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

ইউটিউবের ‘অ্যাকাউন্ট সাসপেনশন অ্যান্ড টার্মিনেশন’ বিভাগে নতুন শর্ত যুক্ত করে বলা হয়েছে, ইউটিউব চ্যানেলের কনটেন্ট বাণিজ্যিকভাবে লাভজনক মনে না হলে ইউটিউব বা গুগল অ্যাকাউন্টের অংশ বিশেষ বা পুরোপুরি বন্ধ করে দিতে পারবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। ১০ ডিসেম্বর থেকে নতুন নীতিমালা কার্যকর হবে।

বিশ্লেষকেরা বলছেন, ইউটিউবের নতুন নীতিমালার অর্থ হচ্ছে, ব্যবহারকারীর কনটেন্ট থেকে যদি তারা অর্থ আয় করতে পারে, তবে কনটেন্ট নির্মাতাকে তারা গুরুত্ব দেবে, তা না হলে চ্যানেল বন্ধ।

গত সপ্তাহ থেকে ইউটিউব ব্যবহারকারীদের কাছে নতুন নীতিমালা বিষয়ে নোটিফিকেশন দেখাতে শুরু করে। ইউটিউব তাদের নতুন নীতিমালা ও স্বচ্ছ ও সহজবোধ্য করেছে বলে একটি মেইলও পাঠিয়েছে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নতুন নীতিমালার অ্যাকাউন্ট বন্ধের শর্তটি ইউটিউবার ও ব্যবহারকারীদের কাছে স্পষ্ট নয়। শুধু কনটেন্ট ক্রিয়েটরদের জন্য নাকি সব ইউটিউব অ্যাকাউন্টধারীদের জন্যও এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে, সে সম্পর্কে তাঁরা এখনো অন্ধকারে আছেন।

এর আগে ২০১৮ সালে মনিটাইজেশন নীতিমালায় পরিবর্তন আনে ইউটিউব। সেবার ইউটিউব ভিডিও থেকে অর্থ আয়ের জন্য কঠোর নিয়ম বেঁধে দেওয়া হয়। এতে অনেক কনটেন্ট নির্মাতার চ্যানেলে অর্থ আয়ের পথ বন্ধ হয়ে যায়।

ছবি: ইউটিউবের সৌজন্যে