Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের খুঁটিনাটি

বর্তমান সময়ে যে কোনো পণ্য কেনাবেচা থেকে সবকিছুই ডিজিটাল মাধ্যমে পরিচালনা সহজ এবং দ্রুত প্রবৃদ্ধি বাড়ে এটি প্রমাণিত। ডিজিটাল ডিভাইস এবং তথ্যপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে পণ্য বিপণনের জন্য যে কৌশল অবলম্বন করা হয়, তাই মূলত ডিজিটাল মার্কেটিং।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং হচ্ছে সেই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের একটি অংশ। যুগান্তর পাঠকদের জন্য আজ সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের খুঁটিনাটি নিয়ে আজকের আয়োজন।

ইন্টারনেটে সক্রিয় লোকদের মধ্যে অনেক বড় অংশ সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফরমগুলো ব্যবহার করেন। এ ফেসবুক টুইটার ইনস্টাগ্রাম ইউটিউবসহ আরও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফরমে পণ্য বা ব্যাবসা প্রচার করাটা প্রচলিত মার্কেটিংয়ের চেয়ে সহজ। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং মূলত এই সোশ্যাল মিডিয়াগুলোকে কেন্দ্র করেই হয়ে থাকে। কারণ, এর মাধ্যমে ইন্টারনেটে সক্রিয় থাকা লোকদের কাছে নিজের পণ্য বা সার্ভিস প্রচার করা যায় এবং তাদের কাছে তাদের প্রয়োজনীয় সেবা পৌঁছে দিতে পারে।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

যেহেতু ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে অনলাইনে কোনো পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করা। আর সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের একটি অংশ সুতরাং ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম এবং ইউটিউবসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফরম ব্যবহার করে অনলাইনে থাকা মানুষের কাছে প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের প্রচারণার নামই হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং। ইন্টারনেটের সহজলভ্যতা, প্রযুক্তি সম্পর্কে মানুষের জানার আগ্রহ অনেক বেড়ে যাওয়ায় এখন অনলাইনে সক্রিয় থাকা লোকদের পরিমাণও বেড়ে যাচ্ছে। তাই তাদেরকে টার্গেট করেই গড়ে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং।

যে কারণে প্রয়োজন

প্রথমত, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করার আগে জানতে হবে সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কে। বর্তমান বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া সম্পর্কে অবগত। কোনো নির্দিষ্ট মাধ্যমে মার্কেটিং করতে চান সেটি নির্ধারণ করতে হবে। সাধারণত ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, লিংকডইন, টিকটকের মাধ্যমে মার্কেটিং হয়ে থাকে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম মাধ্যমে মার্কেটিং বেশি ফলদায়ক।

সুবিধা

প্রচলিত মার্কেটিং ব্যবস্থার তুলনায় সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের সুবিধা অনেক। এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে আপনি যে কোনো ব্র্যান্ড, প্রোডাক্ট বা সার্ভিস বিশ্বের যে কোনো জায়গায় অনলাইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রমোশন বা প্রচার করতে পারবেন। এ ধরনের মার্কেটিংয়ে খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যে ক্রেতার কাছে পৌঁছে যেতে পারেন। মুহূর্তের মধ্যেই ক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব। ফলে অল্প সময়ের মধ্যে আপনি আপনার পণ্যের প্রচারণা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে সক্ষম। এ ছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং পলিসি অনুসরণ করে টার্গেট করা কাস্টমারদের কাছেই পণ্যের প্রচারণা করা যায়। যেমন, কেউ যদি নারীদের পোশাক নিয়ে বিজনেস করে, সেক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়াগুলো শুধু নারীদের কাছেই পণ্যের বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে সুযোগ দেবে। একইভাবে যদি কেউ বই বিক্রি করতে চায় তাহলে ডিসপ্লে করা বইগুলো বইপ্রেমীরাই দেখবে। ফলে পণ্যের বিজ্ঞাপন ওইসব লোকের কাছে পৌঁছানোর সম্ভবনা কম, যারা এ পণ্য সম্পর্কে আগ্রহী নয়।

বাংলাদেশে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কেন করবেন

তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ এখন সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশে এখন কোটি কোটি মানুষ ইন্টারনেট, ফেসবুক ব্যবহার করছে। সেখান থেকে সহজেই হাজার কিংবা লাখ কাস্টমার পাওয়া যেতে পারে নির্দিষ্ট পণ্য বা সেবা পৌছে দেওয়ার জন্য। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে চাইলেই সেটি সম্ভব। ঘরে বসে থাকা লোকেরাও আপনার প্রচার ও মার্কেটিং করা প্রোডাক্ট এবং সার্ভিস অনেক সহজেই দেখে নিতে পারবে।