Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়ালটন প্রিমো ই নাইন হ্যান্ডস-অন রিভিউ ( Primo E9 )

প্রিমিয়াম এডিটেশনে ই সিরিজের প্রিমো ই নাইন লঞ্চ করতে যাচ্ছে ওয়ালটন। এই সিরিজের স্মার্টফোন গুলো খুব সাশ্রয়ী মুল্যের হয়ে থাকে। তবে এবার প্রিমো ই নাইনের আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে, এই সল্পমুল্যে এতে থাকছে ১ জিবি র‍্যাম আর এর এলিগেন্ট ইলেক্টোলাইজড নিকেল ফিনিস যা কিনা একটা স্টাইলিস প্রিমিয়াম ফিল এনে দেয়। এছাড়াও থাকছে  বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা ফ্রন্টে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। বাজারে ওয়ালটন প্রিমো ই নাইন পাওয়া যাবে মাত্র ৩,৮৯৯ টাকায়।

একনজরে প্রিমো ই নাইনঃ

  • অ্যান্ডোয়েড ৮.১ গো এডিটেশন
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসর
  • ১ জিবি ডিডিআর থ্রী র‍্যাম; ৮ জিবি রম
  • বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ
  • ফ্রন্টে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা
  • ১৭০০ এমএএইচ লিথিয়াম অয়ন ব্যাটারি

বক্সে যা যা থাকছে

  • হ্যান্ডসেটটি
  • অ্যাডাপ্টার
  • ইউএসবি ক্যাবল
  • এয়ারফোন
  • প্রটেকশন পেপার
  • ওয়ারেন্টি কার্ড ও সেফটি ইন্সট্রাকশন

ইউজার ইন্টারফেস

প্রিমো ই নাইনের ইউজার ইন্টারফেস একদন সিম্পল ও ফেন্ডলি, এতে লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ (অরিও) গো ভার্সন ব্যাবহার করা হয়েছে। এটি খুব স্মুথ ও ফার্স্ট কাজ করে।

ডিসপ্লে এবং বডিঃ

ডিভাইসটিতে ৪.৫ ইঞ্চি  এফডব্লিউভিজিএ প্রযুক্তির ক্যাপাসিটিভ টাচ স্ক্রিন ডিসপ্লেটি ব্যাবহার করা হয়েছে। এর ডিসপ্লের কালার যথেষ্ট ব্রাইট ছিলো। ফোনটির সাইজ বেশি একটা বড় নয় তাই সহযে এক হাতেই মেন্টেইন করা যাবে। স্পেশালই এর কার্ভ ডিজাইন আর ইলেক্টোলাইজড নিকেল ফিনিসের ফলে হাতে অনেকটা গ্রিপি ও আরামদায়ক অনুভব হয়।

ডিভাইসটি বাজারে ব্লু , কালো, সোনালী ৩ টি কালার পাওয়া যাবে তার মধ্যে কালো রঙটি সবচেয়ে আকর্ষণীয়। ব্যাটারিসহ এই ডিভাইসের ওজন মাত্র ১৩৭ গ্রাম। ডিভাইসটির পুরুত্ব ৮.৮ মিলিমিটার। ডিভাইসটির উচ্চতা ১৩১.৮ মিলিমিটার এবং প্রস্থ ৬৬ মিলিমিটার। পুরো ডিভাইসটি সচল রাখতে থাকছে  ১৭০০ এমএএইচ লিথিয়াম অয়ন ব্যাটারি।

ক্যামেরা

ডিভাইসটির ফ্রন্টে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল এবং রিয়ার প্যানেলে রয়েছে একটি ৫ মেগাপিক্সেল BSI সেন্সর যুক্ত অটোফোকাস ক্যামেরা । আর এই ক্যামেরাটিতে ডিজিটাল জুম, সেলফি টাইমার, ফিচারস রয়েছে। শুটিং মোড হিসেবে রয়েছে ফেস বিউটি, এইচডিআর, প্যানোরামা।

হার্ডওয়্যার

প্রিমো ই নাইন যেহেতু একটি এন্ট্রি লেভেলের ফোন তাই হার্ডওয়্যার দিকদিয়ে এটি সিম্পল।এতে ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াডকোর সিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটিতে দেয়া হয়েছে ডিডিআর থ্রী ১ জিবি র‍্যাম ও ৮ জিবি রম। এক্সটারনাল স্টোরেজ তথা মাইক্রো এসডি কার্ড মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে।

জিপিউ হিসেবে থাকছে মালি ৪০০ এমপি। ছোটোখাটো গেমেস অনায়াসে খেলা যাবে। তবে অনেক গুলো আপস এক সঙ্গে ইউজ করার ক্ষেত্রে কিছুটা ল্যাগের দেখা যেতে পারে। গ্রীকবেঞ্চমার্ক অ্যাপলিকেশনে এর সিঙ্গেল কোর স্কোর এসেছে ৪৪৫ এবং মাল্টি কোর স্কোর এসেছে ১১২৩।

কানেকটিভিটি ফিচারের মধ্যে রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪.২, ইউএসবি ভি-২, ওটিজি, ওটিএ আপডেটের সুবিধা।