Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়ালটন Primo EF8 4G স্মার্টফোন ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ

লো বাজেটে ৪জি স্মার্টফোন খুজছেন ? গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে দেশি কোম্পানি ওয়ালটন বিভিন্ন রেঞ্জের স্মার্টফোন বাজারে লঞ্চ করে আসছে। সম্প্রতি তাদের নিজস্ব কারখানায় তৈরি প্রিমো ইএফ সিরিজের নতুন এন্ট্রি লেভেলের এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন  প্রিমো ইএফ ৮ ৪জি বাজারে লঞ্চ করেছে। নাম শুনে বুঝতে পেরেছেন  ডিভাইসটি  ৪জি সাপোর্টেড। এতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে আন্ড্রয়েড আপডেট ভার্সন অরিও ৮.১ ( গো এডিটেশন)  এ ছাড়াও ১ জিবি ডিডিআর থ্রী র‍্যাম ও ইন্টারনাল স্টোরেজ হিসেবে ৮ জিবি রম এবং ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা । ডিভাইসটি পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৪,৯৯৯ টাকায়। লো রেঞ্জের এমন মাস্টার কম্বিনেশনে অন্য একটি ডিভাইস খুঁজে পাওয়া আসলেই দুষ্কর।

একনজরে ওয়ালটন প্রিমো ইএফ ৮ ৪জি

  • ৪জি সাপোর্টেড
  • ৪.৯৫ ইঞ্চি, ১৮ঃ৯ রেসিও ফুল ভিউ ডিসপ্লে
  • আন্ড্রয়েড অরিও ৮.১ ( গো এডিটেশন)
  • ১.৪০ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
  • মালি টি ৮২০ জিপিউ
  • ডিডিআর থ্রী ১ জিবি র‍্যাম এবং রম ৮ জিবি
  • বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ
  • সফট এলইডি ফ্ল্যাশ সহ বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ২,০৫০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এখানে

ইউজার ইন্টারফেস

ক্যামেরা

ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলে রয়েছে একটি ৫ মেগাপিক্সেল BSI সেন্সর যুক্ত অটোফোকাস ক্যামেরা । আর এই ক্যামেরাটিতে ডিজিটাল জুম, সেলফি টাইমার, এআই ডিটেক্ট এর মতন ফিচারস রয়েছে। ক্যামেরা সেটিংস হিসেবে রয়েছে: এক্সপোজার কন্ট্রোল, হোয়াইট ব্যালেন্স প্রিসেট ,  আইএসও ব্যালেন্স, কালার কন্ট্রোল। শুটিং মোড হিসেবে রয়েছেঅটো মুড, মেনুয়াল মুড, ফেস বিউটি, এইচডিআর, প্যানোরামা । এছাড়াও ১০৮০ পিক্সেল HD ভিডিও করা যাবে।

সামনে ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সাথে সফট এলইডি ফ্ল্যাশ। ৭২০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

ডিসপ্লে এবং বডিঃ

ডিভাইসটিতে ৪.৯৫ ইঞ্চি ও ১৮ঃ৯ ফুল ভিউ ডিসপ্লে ব্যাবহার করা হয়েছে । ডিসপ্লেটি এফডব্লিউভি এ প্রযুক্তির ক্যাপাসিটিভ টাচ স্ক্রিন এবং এর রেজুলেশন ৪৮০*৯৬০ পিক্সেল। প্রায় ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে হওয়ায় ফোনটির সাইজ বেশি একটা বড় নয় তাই সহযে এক হাতেই মেন্টেইন করা যাবে।

ডিভাইসটি বাজারে ৩ টি কালার; মেরিন ব্লু , কালো, সোনালী পাওয়া যাবে তার মধ্যে কালো রঙটি সবচেয়ে আকর্ষণীয়। ব্যাটারিসহ এই ডিভাইসের ওজন মাত্র ১২৮ গ্রাম। ডিভাইসটির পুরুত্ব ৯.৯ মিলিমিটার। ডিভাইসটির উচ্চতা ১৩৮.৭ মিলিমিটার এবং প্রস্থ ৬৫ মিলিমিটার। পুরো ডিভাইসটি সচল রাখতে থাকছে  ২০৫০ এমএএইচ লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।

হার্ডওয়্যার

এতে ১.৪০ গিগাহার্জ কোয়াডকোর সিপিইউ ব্যবহার করা হয়েছে। সিপিইউটির কোর সংখ্যা ৪ টি এবং ক্ষমতা ১৩০০ হার্জ। ডিভাইসটিতে দেয়া হয়েছে ডিডিআর থ্রী ১ জিবি র‍্যাম  ; আর এখানে মোট ৯১৫ এমবি এর ভেতর হালকা কিছু অ্যাপলিকেশন ইনস্টল করলে প্রায় ৫৮২ এমবি বা এর কম-বেশি র‍্যাম  ফাকা থাকে ।

গ্রাফিক্স প্রোসেসিং ইউনিট হিসেবে রয়েছে মালি টি ৮২০ জিপিউ।  ডিভাইসটির সার্বিক গ্রাফিক্স এবং দুই ক্যামেরা মডিউল নিয়ন্ত্রন করার জন্য এই জিপিইউ মোটামোটি।

ডিভাইসটির রম ৮ জিবি এর ভেতর ৪.৭৩ জিবি ব্যবহার করা যাবে। সেন্সর হিসেবে এতে পাওয়া যাবে অ্যক্সেলেরোমিটার,লাইট, প্রোক্সিমিটি,ম্যাগনেটোমিটার,জাইরোস্কোপ এবং ব্যারোমিটার। গ্রীকবেঞ্চমার্ক অ্যাপলিকেশনে এর সিঙ্গেল কোর স্কোর এসেছে ৬৫৬ এবং মাল্টি কোর স্কোর এসেছে ১৮২৩।

যেহেতু এটি একটি এন্ট্রি লেভেলের স্মার্টফোন বাজেটের দিক থেকে বিবেচনা করলে আমাদের কাছে ডিভাইসটি যথেষ্ট ভালো মনে হয়েছে। লো বাজেটে ৪জি এর স্বাদ নিতে চাইলে, ডিভাইসটি দেখতে পারেন।