Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়ালটন প্রিমো জিএম থ্রী প্লাস (থ্রী জিবি) ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ-Primo GM3+ (3GB RAM)

ওয়ালটন বাজারে নিয়ে এসেছে জিএম৩+ এর ৩ জিবি র‍্যামের একটি ভার্সন জিএম৩+ ৩জিবি। মূলত গ্রাহকের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে এটি বের করা। আগের সেই দানবীয় বডি আর লং লাস্টিং পাওয়ার ব্যাকআপের সাথে যুক্ত হয়েছে ২+১= ৩ জিবি ডিডিআরথ্রি র‍্যাম ও ১৬ জিবি রম, এখন আমাদের কাছে ফ্লাগসিপ ফোনের মত মনে হয়েছে। স্মার্টফোনটির ৫.৩৪ ইঞ্চি বিশাল ডিসপ্লে এর সাথে এর আরেকটি প্লাস পয়েন্ট হলও এর পিছে ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সামনের ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। আর এটা মানতেই হবে ওয়ালটন এর বিগত স্মার্টফোন গুলিতে ক্যামেরা এর দিক দিয়ে অনেক বেশি ইম্প্রুভমেন্ট লক্ষ্য করা গিয়েছে। ১৮ঃ৯ রেসিও ডিসপ্লে এর সাথে এর আরেকটি আকর্ষণীয় দিক হল স্মার্টফোনটির অপারেটিং সিস্টেম যেটা হল অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম। জিএম ৩+ ৩ জিবি  এর মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৮,৫৯৯ টাকা মাত্র ।

একনজরে প্রিমো জিএম৩+ (৩জিবি র‍্যাম) স্মার্টফোনঃ

  • 4G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট
  • ৫.৩৪” ফুল-ভিউ আইপিএস ডিসপ্লে
  • ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসর
  • ৩ জিবি ডিডিআরথ্রি র‍্যাম; ১৬ জিবি রম
  • ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১
  • ৪০০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি
  • OTG সাপোর্ট

বক্সে যা যা থাকছে

  • প্রিমো জিএম৩+ হ্যান্ডসেটটি
  • চার্জার এডাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • ইয়ারফোন
  • প্রটেকশন গ্লাস (ডিসপ্লেতে যুক্ত)
  • ওয়ারেন্টি কার্ড
  • সেফটি ইন্সট্রাকশন
  • সিম ইজেক্টর পিন
  • একটি আকর্ষণীয় ব্যাক কভার

ইউজার ইন্টারফেস

ওয়ালটন প্রিমো জি.এম.৩+ (৩ জিবি) এ ইউজ করা হয়েছে এ্যন্ড্রয়েড ৮.১ স্টক ইউজার ইন্টারফেস।

ডিসপ্লে এবং বডিঃ

প্রিমো জিএম থ্রী প্লাস ৩ জিবি ডিভাইসটিতে রয়েছে 5.34-ইঞ্চি FWVGA+ প্রযুক্তির আইপিএস ডিসপ্লে । ডিসপ্লের কালার যথেষ্ট ব্লাইট ও একুরেট ছিলো।  আর এটি  18: 9 রেশিও হওয়ায় মুভি কিংবা গেমিং এ দারুন এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া যাবে।

উপর ম্যাট ফিনিস দেয়া হয়েছে এবং এর বরাবর মসৃণ বাঁকানো টেক্সচার রাখা হয়েছে যাতে একটি আরামদায়ক এবং কঠিন দৃঢ়তা উপলব্ধ করা যায়। ডিভাইসটি ডিপ ব্লু, রয়্যাল ব্লু, লাইট ব্লু এবং গোন্ডেন ৪ টি কালারে পাওয়া যাচ্ছে।

ক্যামেরা

প্রিমো জিএম থ্রী প্লাস ৩ জিবি ডিভাইসটির পিছনে/রিয়ার প্যানেলে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল অটো ফোকাস ক্যামেরা। এই ক্যামেরায় সিঙ্গেল এলইডি ফ্ল্যাস এবং অটোফোকাস সুবিধা থাকছে। রিয়ার ক্যামেরার শুটিং মোড গুলো হলঃ প্যানারোমা, এইচডিআর, ফেস বিউটি এবং নরমাল মোড। ফ্রন্টে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ। ফ্রন্ট ক্যামেরার শুটিং মোড গুলো হলঃ এইচডিআর, ফেস বিউটি এবং নরমাল মোড। ক্যামেরার সেটিংস অপশনগুলো হল: এক্সপোসার কন্ট্রোল, হোয়াইট ব্যালেন্স, আইএসও ব্যালেন্স, ইমেজ প্রোপার্টিজ, কালার ইফেক্ট। ক্যামেরাটি ১৯২০*১০৮০ পিক্সেল রেজুলেশনে ভিডিও রেকর্ড করতে পারে।

হার্ডওয়্যার

প্রিমো জিএম থ্রী প্লাস ৩ জিবিতে থাকছে 1.3GHz কোয়াড কোর প্রসেসর, ৩ জিবি ডিডিআর থ্রী র‍্যাম এবং ১৬জিবি রম (৬৪ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে ) রয়েছে, যা কিনা স্মার্টফোনর উন্নততর স্মুথ পারফরমেন্সের নিশ্চিত করে। মাল্টি টাস্কিং আরও সহজ এবং আরামদায়ক করতে ল্যাগ মুক্ত ব্যবহারের আনন্দ উপভোগ করা যাবে ।

ওয়ালটন এবার তাদের মালি জিপিইউ থেকে বের হয়ে এই স্মার্টফোনটিতে ইমাজিনেশন টেকনোলজিস এর PowerVr Rogue Ge8100 জিপিইউ ব্যবহার করেছে।

গিগবেঞ্চ বেঞ্চমার্ক অ্যাপে এই স্মার্টফোনটির সিঙ্গেল কোরে স্কোর এসেছে ৫৯৬ এবং মাল্টি কোরে এসেছে ১৬৬৩। এটি তুলনা মূলক জিএম থ্রী প্লাস এর থেকে কিছুটা এগিয়ে।

ব্যাটারি

ডিভাইসটিতে রয়েছে ৪০০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যাটারি। যার মাধ্যমে অনেক বেশি ইউজেও অন্তত সারাদিন ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর

অধিক নিরাপত্তার জন্য ডিভাইসটিতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও থাকছে।