Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়ালটন PRIMO H7S – মেইড ইন বাংলাদেশ

ওয়ালটন বাজারে নিয়ে এলো এইচ সিরিজের তাদের তৈরি (বাংলাদেশে) স্মার্ট ফোন প্রিমো এইচ এস ৭ এস, অসাধারন আউটলুকের সাথে থাকছে ৫.৪৫” ১৮ঃ৯ ফুল-ভিউ আইপিএস ডিসপ্লে, ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার সহ ফেস আনলকের মত চমৎকার ফিচার অ্যাড করা হয়েছে। 4G নেটওয়ার্ক সাপোর্টেড এই ডিভাইসটিতে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম; ১৬ জিবি রম ও অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে আপগ্রেড অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও রয়েছে। রিয়ারে থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা । প্রিমো এইচ ৭ এস এর মুল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৯,১৯৯ টাকা মাত্র।

 

এক নজরে প্রিমো H7s

  • 4G নেটওয়ার্ক সাপোর্ট
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও
  • ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসর
  • ২ জিবি র‍্যাম; ১৬ জিবি রম
  • ৫.৪৫” ১৮ঃ৯ ফুল-ভিউ আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ফেস আনলক
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৩০০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

আন বক্সিং

 

 

ইউজার ইন্টারফেস

 

 

ইউজার ইন্টারফেস হিসেবে থাকছে সর্বশেষ অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও, এটি ইউজারকে সিকিউর সফটওয়্যার অভিজ্ঞতা প্রদান করবে। এছারাও এটি ইউজার ফ্রেন্ডলি, দ্রুত অ্যাপ্লিকেশন লঞ্চ এবং উন্নততর ব্যাটারি ব্যবস্থাপনা প্রদান করে।

 

 

 

ক্যামেরা

ফোনটির পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ১৩ মেগাপিক্সেল অটো ফোকাস ক্যামেরা।  সেলফির জন্য ফোনটির সামনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরার বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে ডিজিটাল জুম, অটো-ফোকাস, কন্টিনিউয়াস ফোকাস, টাচ-ফোকাস, ফেইস ডিটেকশন, ফিঙ্গারপ্রিন্ট ক্যাপচার, ফেইস বিউটি, প্যানোরমা, এইচডিআর, সিন ফ্রেম, সেলফ টাইমার ইত্যাদি।

 

সেলফির ক্ষেত্রে ফিঙ্গার প্রিন্ট ফিচারটি ইউজারকে বেশ কাজে দিবে। সুন্দর মুহূর্ত গুলো সহজে হাতের স্পর্শে বন্দি করা যাবে।

 

ডিসপ্লে এবং বডি

সৌন্দর্য এবং ঠাল্কা ওজন সঙ্গে প্রিম এইচ ৭এস ডিজাইন দারুন মনে হয় এবং এটি একই সময়ে একটি আকর্ষণীয় ডিভাইস। ডিজাইনে মেটাল-টেক্সচার্ড ফিনিস ও পাসে স্মুথ কার্ভ রাখা হয়েছে। ওভার অল বলতে গেলে ডিভাইসটির বিল্ড কোয়্যালিটি অনেক উন্নত ছিল।

 

ডিভাইসটিতে  5.45 ইঞ্চি পূর্ণ-ভিউ এইচডি + আইপিএস ডিসপ্লে ব্যাবহার করা হয়েছে । কালার প্রোডাকশন যথেষ্ট ভালো ও উজ্জ্বল ছিল। নতুন প্রজন্মের 18: 9  অনুপাত স্মার্টফোন দেখার অভিজ্ঞতাকে বাড়ায় যাতে আপনি নিজেকে সম্পূর্ণরূপে উপলদ্ধি করতে পারেন। এছারা ও এর ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস অন্যরকন একটা ফিল এনে দেয়।

হার্ডওয়্যার

 

ফোনের সুরক্ষায় যুক্ত হয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। যার মাধ্যমে আঙ্গুলের ছোঁয়ায় ০.২ সেকেন্ডেই ফোনটি আনলক করা যাবে। ফলে স্ক্রিন আনলকে পাসওয়ার্ড টাইপ করা বা প্যাটার্ন আঁকার প্রয়োজন পড়বে না। ব্যবহারকারী ছাড়া আর কেউ ফোন আনলক করতে পারবে না। এতে ফোনের তথ্য থাকবে সুরক্ষিত। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর হিসেবে পাঁচ আঙ্গুলের ব্যবহার করা যাবে।

 

আপনার মুখ আপনার স্মার্টফোনের চাবি। এখন আপনার ডিভাইস আনলক করতে আপনার মুখ ব্যবহার করুন। একবার আপনার স্ক্রিন আপ উঠলে, আপনার ফোনটি আনলক হবে। এই ফিটারটি অনেক উপকারী ।

 

মাল্টি-টাচ সুবিধার নতুন ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে দ্রুতগতির ১.৩ গিগাহার্জের কোয়াড কোর প্রসেসর। রয়েছে ২ গিগাবাইট র‍্যাম । ভিডিও ও গেইমিং অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে  power VR rogue GE8100। প্রয়োজনীয় ফাইল সংরক্ষণে রয়েছে ১৬ গিগাবাইট রম। যা মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

 

গীগবেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোরে ডিভাইসটির স্কোর এসেছে 586। আর মাল্টি কোরে এর স্কোর এসেছে 1632। স্পেসিফিকেশন হিসেবে বেঞ্চমার্ক স্কোর এভারেজ।

 

পুরো স্মার্টফোনটি সক্রিয় রাখতে থাকছে ৩০০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি । হ্যাভি ইউজারদের ক্ষেত্রে এটি একটি প্লাস পয়েন্ট।