Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

টিকটক ও লাইকি স্টার দের জন্য বেস্ট বাজেট স্মার্টফোন!!

বর্তমান সময়ে ভার্চুয়ালি জনপ্রিয় হতে এবং নিজেকে মানুষের সামনে উপস্থাপন করার জন্য অন্যতম সামাজিক মাধ্যম টিকটক এবং লাইকি। টিকটক এবং লাইকির মত সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রানবন্ত দারুন সব ভিডিও তৈরি এবং প্রকাশের মাধ্যমে, আপনি যেমন বহু মানুষের মাঝে নিজের মেধা প্রকাশ করতে পারেন, তেমনই পাওয়া যায় ছোট খাট খ্যাতি। আর সে কারনে খুবই ভালো কিছু টিকটক কিংবা লাইকি ভিডিও তৈরির জন্য প্রয়োজন নূন্যতম রিকুয়ারমেন্টস সম্বলিত ভালো একটি ফোন। তবে সবসময়ই আমাদের প্রধান সমস্যাটা দাড়ায় বাজেট। আর এই সমস্যাটা দূর করতে আছে, দেশীয় ইলেকট্রনিকস জায়ান্ট ওয়ালটনের দারুন বাজেটে অনবদ্য সব ফোন!

তো অনেক মানুষই থাকেন, যারা টিকটক লাইকি এর মত এসব সামাজিক মাধ্যমে সময় দিতে এবং নিত্যনতুন ভিডিও আপলোড করতে পছন্দ করেন। তবে ভালো ফোনের জন্য হয়ত ঠিকভাবে সেটি সম্ভব হয় না। তাদের জন্য আছে ওয়ালটনের সাশ্রয় মূল্যের স্মার্টফোন সমগ্রের মধ্যে অন্যতম নতুন একটি ফোন প্রিমো এইচ ৯ । তো বাজেটের মধ্যে খুবি অনবদ্য একটি স্মার্টফোন হয়ে হয়ত আপনার সামনের দিনের টিকটক কিংবা লাইকি স্টার হওয়ার পেছনের সঙ্গী হবে দারুন এই স্মার্টফোনটি।

এক নজরে প্রিমো এইচ৯ স্মার্টফোনটি,

  • ১৯ঃ৯ রেশিও, ৬.১ ইঞ্চি ইউ-নচ সমৃদ্ধ ডিসপ্লে
  • ১.৬ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর
  • PowerVR Rouge GE8322 জিপিইউ
  • ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম, ১২৮ জিবি পর্যন্ত এসডি কার্ড সাপোর্ট
  • ১৩ মেগাপিক্সেল এবং ২ মেগাপিক্সেল সেন্সর নিয়ে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা মডিউল
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৩৫০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি
  • ৭৮৯৯ টাকা

একজন টিকটক কিংবা লাইকি স্টারের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, যে ডিভাইসটি তিনি ব্যবহার করছেন কন্টেন্ট শুট করার জন্য তার ক্যামেরা তুলনামুলক ভালো হওয়া। বাজেট ফোনের ক্ষেত্রে আমরা প্রায় সময়েই দেখি ক্যামেরা নিয়ে কম্প্রোমাইজ করা হয়, তবে নব্য টিকটক কিংবা লাইকি স্টারদের প্রিমো এইচ৯ স্মার্টফোনটির সাথে ক্যামেরা নিয়ে কোন চিন্তাই করতে হবেনা। প্রিমো এইচ৯ এর রিয়ার প্যানেলে থাকছে ১৩+২ মেগাপিক্সেলের সেন্সর নিয়ে একটি ডুয়াল ক্যামেরা মডিউল আর সামনে ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে থাকছে একটি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর।

ডিভাইসটির রিয়ার ক্যামেরা মডিউল ১০৮০পি রেজুলেশনে ভিডিও রেকর্ড করতে সক্ষম। পাশাপাশি এতে থাকছে বিউটি ভিডিও মোড, যা কিনা টিকটক এবং লাইকি স্টারদের খুব কাজে দিবে। তো দারুন বাজেটে টিকটক এবং লাইকি স্টারদের জন্য প্রিমো এইচ৯ স্মার্টফোনে ক্যামেরা নিয়ে থাকছে ,নো কম্প্রোমাইজ!

টিকটক এবং লাইকি স্টারদের অবশ্যই দরকার তুলনামূলক ভালো হার্ডওয়্যার, কেননা তাদের ভিডিও রেকর্ড থেকে শুরু করে এডিটও করতে হয় একই ডিভাইসে। আর তাই অবশ্যই ডিভাইসটির হার্ডওয়্যারও তুলনামূলক এই দুটি প্লাটফর্মের জন্য কম্প্যাটিবল হওয়া জরুরি। আর সেই দিক থেকে প্রিমো এইচ৯ নিয়ে খুশি থাকবেন নব্য কিংবা ভবিষ্যৎ টিকটক লাইকি স্টার’রা। কেননা ১.৬ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসরের পাশাপাশি এই স্মার্টফোনটিতে পাবেন ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম। সুতরাং যেখানে সেখানে টানা কয়েকটি ভিডিও শুট করার পর, নিমিষেই সেই ভিডিও এর এডিটিংও হবে একদম পানির মত স্মুথ!

৩২ জিবি ইন্টারনাল মেমরি এর পাশাপাশি এই স্মার্টরফোনটিতে আপনি অতিরিক্ত ১২৮ জিবি পর্যন্ত এক্সট্রা মাইক্রো এসডি কার্ডও ব্যবহার করতে পারবেন! সুতরাং আপনাদের দারুন দারুন সকল ভিডিও এবং গুরুত্বপূর্ণ সকল ডেটা সংরক্ষনের জন্য স্টোরেজ পাচ্ছেন অফুরন্ত!

ডিভাইসটি যথেষ্ট লাইট, এর ওজন মাত্র ১৬৭ গ্রাম ব্যাটারি সহ, সুতরাং আপনার পকেটে কিংবা হাতে খুব অনায়াসেই বহন করে নিয়ে যেখানে সেখানে চলতে পারবেন। আর এই ডিভাইসটিকে ব্যাক আপ দিবে একটি ৩৫০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। ফুল চার্জ দিয়ে সারাদিনে অনায়াসে ১০-১২ টা টিকটক ভিডিও শুট করে আপনার দৈনিক লক্ষ্যমাত্রা পুরন করতে পারবেন খুব সহজে, সারাদিন ভিডিও রেকর্ড এবং এডিট করে টিকটক ও লাইকিতে আপলোড করবেন ধুমসে!

৭৮৯৯ টাকার দারুন এই স্মার্টফোনটি টিকটক এবং লাইকি কেন্দ্রিক ব্যবহারকারী ছাড়াও, এই বাজেট রেঞ্জে যারা ভালো স্মার্টফোন খুঁজছেন তাদের জন্যও একদম মানানসই। স্মার্টফোনটির রিভিউ দেখে আসতে পারেন এই লিঙ্ক থেকে। বাজেটের মধ্যে বেশি ব্যাটারি লাইফ এবং স্টেবল পারফরমেন্স যাদের দরকার, আমি বলব তাঁদের জন্য জন্য এই প্রিমো এইচ৯ স্মার্টফোনটি সেরা।