Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ওয়ালটন Primo-R6 Max হ্যান্ডস অন রিভিউ

নচ ডিসপ্লে সমৃদ্ধ সম্প্রতি রিলিজ হলো ওয়ালটন ‘প্রিমো আর৬ ম্যাক্স’ ফোনটিতে আছে ৬ দশমিক ২৬ ইঞ্চির ডিসপ্লে। রেজ্যুলেশন ১৫২০ বাই ৭২০ পিক্সেল। ফোনটির পেছনে রয়েছে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা। সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফোনটির দাম ধরা হয়েছে ১০ হাজার ৯৯৯ টাকা।

এক নজরে প্রিমো আর৬ ম্যাক্সঃ

  • ৪জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট
  • এন্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম
  • ৬.২৬ ইঞ্চি ইউ নচ এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে
  • ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস
  • ১২ ন্যানোমিটার ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর
  • পাওয়ারভিআর জিই৮৩২০ জিপিউ
  • ৩ জিবি ডিডিআর-৪ র‍্যাম ; ৩২ জিবি রম মাইক্র এসডি কার্ড দ্বারা ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে
  • ডুয়েল (১৩+২) মেগাপিক্সেল অটোফোকাস রিয়ার ক্যামেরা
  • ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা
  • ফেস আলনক
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৪০০০ এমএএইচ ক্ষমতাসম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি

প্রিমো আর৬ ম্যাক্স বক্স এর ভেতর যা যা পাবেন,

  • প্রিমো এস৭ ডিভাইসটি
  • পাওয়ার আড্যাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • একটি হেডফোন
  • সিম ইজেক্টর
  • স্ক্রিন প্রটেকটিভ পেপার
  • একটি সুন্দর ব্যাক-কভার
  • ওয়ারেন্টি কার্ড ও আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র

উইজার ইন্টারফেসঃ

অপারেটিং সিস্টেম

সম্পূর্ণ ডিভাইসকে পরিচালনা করবে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম। এতে প্রায় এন্ড্রয়েড পাই এর স্টক স্বাদই পাওয়া যাবে।

বডি ও ডিসপ্লে

গ্লোসি ডিজাইনের প্রিমো আর ৬ ম্যাক্স ডিভাইসটি বাজারে নীল ও কালো রঙে পাওয়া যাবে।  ডিভাইসটইর উজ্জ্বল গ্লসি মিরর রিফ্লেকটিভ প্লাস্টিক বিল্ড এবং এর রিয়ার প্যানেলের গ্র্যাডিয়েন্ট ইফেক্ট থাকছে।  ডিভাইসটির উচ্চতা ১৫৯.৮ মিলিমিটার এবং প্রসস্থ ৭৬.৫ মিলিমিটার।  ব্যাটারি সহ এর ওজন প্রায় ১৭২ গ্রাম, যা তুলনামুলক হালকাই বলতে গেলে।

প্রিমো আর৬ ম্যাক্স এর ফ্রন্ট প্যানেলে ডিসপ্লে এর অপর থাকছে একটি ইউ নচ।  এতে ব্যবহার করা হয়েছে একটি ৬.২৬ ইঞ্চি এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে।  সুতরাং ডিসপ্লে এর দিক দিয়ে একে একটি বিগ ডিসপ্লে স্মার্টফোন বললে ভুল হবেনা।  ডিসপ্লেটি অন্যসকল ফোনের মতই সাইড দিয়ে ২.৫ ডি কার্ভড।  এই ডিসপ্লেটির রেজুলেসন ১৫২০*৭২০ পিক্সেল।  ডিসপ্লেটি সাইড থেকে ২.৫ ডি কার্ভড।

ক্যামেরা

দারুন সব ফটো ক্যাপচার করতে প্রিমো আর৬ ম্যাক্স ডিভাইসটিতে রয়েছে ডুয়েল কামেরা সেটআপ। ফোনটির রিয়ারে ১৩+২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে যার ১৩ মেগাপিক্সেল হচ্চে প্রথান আর ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সিং এর কাজ করবে। F2.0 অ্যাপারচার হওয়ায় লো লাইটে ভালো ছবি পাওয়া যাবে।  এটি দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকছে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ৮ মেগাপিক্সেল পিডিএএফ টেকনোলোজির ক্যামেরা। পোটরেইট, ফেস বিউটি প্রভৃতি ফিচারস থাকছে।

ক্যামেরা ইউ আই

হার্ডওয়্যার

এতে আছে ১.৬ গিগাহার্জ গতির এআরএম কর্টেক্স-এ৫৫ অক্টাকোর প্রসেসর।  এটি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স  দ্বারা পরিচালিত বলে ইউজার এক্সপেরিএন্স হবে আরও বেশি স্মুথ। এর সঙ্গে রয়েছে ৩ জিবি  র‌্যাম  ও জিই৮৩২২ গ্রাফিক্স।

কোন প্রকার ল্যাগিং ছাড়া গেমিং এর দারুন অভিজ্ঞতা নেয়া যাবে।  এক সাথে অনেকগুলো আপ্যাস ব্যাবহার করা যাবে। স্প্লিট স্ক্রীনের সুবিধাতো থাকছেই। ব্যাটারি এর দিক দিয়েও এটি অনেক সাশ্রয়ী হবে আশা করা যাচ্ছে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

সবকিছু মিলিয়ে এনটুটু বেঞ্চমার্কিং অ্যাপে  এর স্কোর এসেছে ৭৩১০৭।  আর গিক বেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোর স্কোর ৮২১ এবং মাল্টি কোর স্কোর ৩৪৪১

ফিঙ্গারপ্রিন্ট

স্মার্টফোনটির রিয়ার প্যানেলে ক্যামেরা মডিউলএর ঠিক কাছেই থাকছে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।  যেখানে সর্বোচ্চ ৫ টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সাপোর্ট করবে।  আর এই ফিঙ্গারপ্রিন্টের রেসপন্স টাইম ০.১ সেকেন্ড; যা সত্যি খুব ফাস্ট।

ফেস আনলক

ডিভাইসটির ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পাশাপাশি  এআই সাপোর্ট থাকার কারনে, এই ডিভাইসটি সিকিউরিটির জন্য আরেকটি বিশেষ ফিচার দিচ্ছে, যা হচ্ছে ফেস আনলক।

ব্যাটারি

প্রিমো এস৭ স্মার্টফোনটিতে থাকছে একটি ৪০০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।  ডিভাইসটি ৫ভোল্ট বাই ২ অ্যাম্পিয়ার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।  যা দিয়ে সম্পূর্ণ ডিভাইসটি চার্জ হতে প্রায় ২ ঘন্টারও কম সময় লাগবে।

অনলাইন থিম স্টোর

প্রিমো আর ৬ ম্যাক্স এ বিন্ডইন অনলাইন থিম স্টোর আপস অ্যাড করা হয়েছে ১হাজারে অধিক থিম পাওয়া যাবে।

ওয়ারেন্টি

ওয়ালটন এর অন্যসব ফোনের মতই এতে পাওয়া যাবে রিপ্লেসমেন্ট এবং ওয়ারেন্টি সুবিধা।