Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

Primo S7 Hands on Review – ট্রিপল ক্যামেরা, ওয়াটার ড্রপ নচ

ওয়ালটন এর প্রথম নচ ডিসপ্লে এবং ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সংবলিত স্মার্টফোন ‘প্রিমো এস৭’ আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকেই স্মার্টফোনটি সারা দেশব্যাপি পাওয়া যাবে। বাজারে নিত্যনতুন ডিজাইন আর নান্দনিক ফিচারস এর মাঝে ওয়ালটন পিছিয়ে নেই। রিয়ারে ট্রিপল ক্যামের সেটআপ আর সেলফির জন্য সামনে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।   নচ ডিসপ্লে আকর্ষণীয় গ্র্যাডিয়েন্ট ইফেক্ট গ্লাস ডিজাইন ফোনটিকে অন্য লেভেলে নিয়ে গিয়েছে। হার্ডওয়্যারের দিক থেকে অনেক এগিয়ে। মিড বাজেটের এই ফোনটির বিস্তারিত জানানোর চেষ্টা করব।

এক নজরে প্রিমো এস ৭ঃ

  • ৪জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট
  • এন্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম
  • ৬.২৬ ইঞ্চি ইউ নচ এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে
  • ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস
  • ১২ ন্যানোমিটার ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর
  • পাওয়ারভিআর জিই৮৩২০ জিপিউ
  • ৩ জিবি ডিডিআর-৪ র‍্যাম ; ৩২ জিবি রম মাইক্র এসডি কার্ড দ্বারা ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে
  • এই পাওয়ারেড ট্রিপল (১২+১৩+২) মেগাপিক্সেল অটোফোকাস রিয়ার ক্যামেরা
  • ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা
  • ফেস আলনক
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৩৯০০ এমএএইচ ক্ষমতাসম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি

 প্রিমো এস৭ বক্স এর ভেতর যা যা পাবেনঃ

  • প্রিমো এস৭ ডিভাইসটি
  • পাওয়ার আড্যাপ্টার
  • ইউএসবি কেবল
  • একটি হেডফোন
  • সিম ইজেক্টর
  • স্ক্রিন প্রটেকটিভ পেপার
  • একটি সুন্দর ব্যাক-কভার
  • ওয়ারেন্টি কার্ড ও আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র

ইউজার ইন্টারফেস

অপারেটিং সিস্টেম

সম্পূর্ণ ডিভাইসকে পরিচালনা করবে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম।

বডি ও ডিসপ্লে

এ্যালিগেন্ট ডিজাইনের ‘প্রিমো এস৭’ ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাবে দুইটি আকর্ষণীয় কালারে, আর এগুলো হলঃ সি গ্রিন(সমুদ্র সবুজ) এবং ব্লু  (নীল)।  ডিভাইসটইর গ্লসি মিরর ফ্রেম এবং গ্লাস এর মত ব্যাক (রিয়ার) প্যানেল এর সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে শতগুণে! পাশাপাশি এর রিয়ার প্যানেলের গ্র্যাডিয়েন্ট ইফেক্ট রয়েছে।  ডিভাইসটির উচ্চতা ১৫৯ মিলিমিটার এবং প্রসস্থ ৭৬.৭ মিলিমিটার।  ব্যাটারি সহ এর ওজন প্রায় ১৭৫ গ্রাম, যা তুলনামুলক হালকাই বলতে গেলে।

ফোনটিতে ৬.২৬ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস নচ ডিসপ্লে ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এটি একদম ১৯ঃ৯ এস্পেক্ট রেসিও আল্ট্রা ফুল ভিউ ডিসপ্লে।  যার বডি-টু-স্ক্রিন রেসিও মাত্র ৮৮%।  আর ডিসপ্লে ব্রাইটনেসএর দিক দিয়ে দারুন, কেননা এর ডিসপ্লে ব্রাইটনেস ৪৫০ নিট।

ক্যামেরা

প্রিমো এস৭ ডিভাইসটির মূল আকর্ষণ এর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ট্রিপল কামেরা সেটআপ। ফোনটির রিয়ারে১২+১৩+২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। মূল ক্যামেরাটি সনি আইএমএক্স৪৮৬ ক্যামেরা সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। সাথে থাকছে ১২০ ডিগ্রী সুপার ওয়াইড লেন্স। এটি দিয়ে ১৯২০*১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট প্যানেলে ওয়াটার ড্রপ নচ এর ভেতর আছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেল এর সেলফি ক্যামেরা সেন্সর। এর অ্যাপার্চার এফ/২.০। এতে থাকবে ফেস ডিটেকশন আটো-ফোকাস এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তথা এআই বিউটি মোড। এটি দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

ক্যামেরা ইউ আই

হার্ডওয়্যার

ডিভাইসটির মেইন চিপসেট হিসেবে থাকছে মিডিয়াটেকের mt6762 সিপিইউ।  যা একটি ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির ২ গিগাহার্জ অক্টা-কোর প্রসেসর।  আর এটিও ওয়ালটন এর দাবিতে একটু  আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স  দ্বারা পরিচালিত বলে ইউজার এক্সপেরিএন্স হবে আরও বেশি স্মুথ।  আর ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তি হয়ার কারনে ব্যাটারি এর দিক দিয়েও এটি অনেক সাশ্রয়ী হবে আশা করা যাচ্ছে।  এতে থাকবে, পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২০ গ্রাফিক্স।

এতে ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‍্যাম ও ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ব্যবহার করা হয়েছে। যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

সবকিছু মিলিয়ে এনটুটু বেঞ্চমার্কিং অ্যাপে  এর স্কোর এসেছে ৭৭১১৫।  আর গিক বেঞ্চ অ্যাপে সিঙ্গেল কোর স্কোর ৭৬৪ এবং মাল্টি কোর স্কোর ৩৬০২।

ব্যাটারি

প্রিমো এস৭ স্মার্টফোনটিতে থাকছে একটি ৩৯০০ এমএএইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।  ডিভাইসটি ৫ভোল্ট বাই ২ অ্যাম্পিয়ার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করবে।  যা দিয়ে সম্পূর্ণ ডিভাইসটি চার্জ হতে প্রায় ২ ঘন্টারও কম সময় লাগবে।

স্পেশাল ফিচারসঃ

ফিঙ্গারপ্রিন্ট

স্মার্টফোনটির রিয়ার প্যানেলে ক্যামেরা মডিউলএর ঠিক কাছেই থাকছে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।  যেখানে সর্বোচ্চ ৫ টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সাপোর্ট করবে।  আর এই ফিঙ্গারপ্রিন্টের রেসপন্স টাইম ০.১ সেকেন্ড; যা সত্যি খুব ফাস্ট।

ফেস আনলক

ডিভাইসটির ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পাশাপাশি  এআই সাপোর্ট থাকার কারনে, এই ডিভাইসটি সিকিউরিটির জন্য আরেকটি বিশেষ ফিচার দিচ্ছে, যা হচ্ছে ফেস আনলক।

ওয়ারেন্টি

ওয়ালটন এর অন্যসব ফোনের মতই এতে পাওয়া যাবে রিপ্লেসমেন্ট এবং ওয়ারেন্টি সুবিধা।